হোয়াট্সঅ্যাপের আড্ডা — ১ : কালীঘাটের পট

Whatsapper Adda greenউদ্ভাস সবসময় নতুন নতুন মাধ্যমে কাজ করতে চায়। আর সবার কাছে চিত্রচর্চা পৌঁছে দিতে গত ১৯ এপ্রিল, ২০১৫-তে হোয়াট্সঅ্যাপে ‘উদ্ভাস’ নামের একটি গ্রুপ তৈরি করা হয়। শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সদস্যদের অংশগ্রহণ ও উদ্ভাসের লক্ষ্য এই গ্রুপকে সফলতার দিকে এগিয়ে নিয়ে যায়। উদ্ভাসের ওয়েবসাইটে সেই গ্রুপকে তুলে রাখার কাজ শুরু হলো। সম্পাদিতরূপে ‘উদ্ভাস’ গ্রুপের সেই স্বাদ-ই ‘হোয়াট্সঅ্যাপের আড্ডা’।  প্রাথমিক কাজ শুরু হয়েও থমকে গিয়েছিল, তাই পর্বে পর্বে গুছিয়ে নেওয়া।

 

একদা বাংলার সবচেয়ে জনপ্রিয় চিত্রধারা হল কালীঘাটের পট। কালীঘাটে তীর্থদর্শন করতে এসে সাধারণ মানুষ এই পট কিনে নিয়ে যেতেন। ঊনবিংশ শতকের প্রথমভাগ থেকে কালীঘাটের পট জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। নগরে বিকাশলাভ করলেও এটি আসলে একজাতীয় লোকচিত্রকলা। মুর্শিদাবাদ কলমের পরেই বাংলার চিত্রকলায় কালীঘাটের পট উল্লেখযোগ্য চিত্রশৈলী।Kalighat Shibdurga

কালীঘাটের পটের বৈশিষ্ট্য হল তুলির সাবলীল টান, পটলচেরা চোখ, উজ্জ্বল রঙের বাহার আর পুতুলের মতো ফিগার। কালীঘাটের পটশৈলী থেকে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন যামিনী রায়। তাঁর আঁকা ছবি দেখলেই সেকথা স্পষ্ট বোঝা যায়। তবে তাঁর ছবি আরও পরিশীলিত ও উচ্চাঙ্গের।

কালীঘাটের পটচিত্রীরা শুধু যে পৌরাণিক কাহিনী নিয়েই পট আঁকতেন তা নয়, নানারকম সামাজিক ঘটনা নিয়েও তাঁরা কাজ করতেন। তাঁরাই এদেশে ব্যঙ্গচিত্রে আদি স্রষ্টা। কিন্তু পটচিত্রীদের সংখ্যা দিন দিন কমছে … এটা আফশোষের বিষয়।Kalighat Nisringha

কালীঘাটের পটুয়ারা ব্রিটিশ-প্রভাবে প্রভাবিত হয়ে স্বচ্ছ জলরঙে ছবি আঁকা শুরু করেন। সেইসঙ্গে দেশি কাগজ ছেড়ে বিলিতি কাগজ। আসলে কালীঘাটের পট একটা যুগসন্ধিক্ষণের ফল। প্রাচ্য ও পাশ্চাত্য শৈলী এবং শহুরে ও লোকশিল্পের মেলবন্ধনে গড়ে ওঠে এক শিল্পধারা।

কালীঘাটের পটরচনাকালে কিছু শিল্পীদেরও নাম জানা যায়। নীলমণি দাস, বলরাম দাস, গোপাল দাস, নিবারণচন্দ্র ঘোষ, কালীচরণ ঘোষ প্রমুখ।Kalighat Bakasur

Kalighat Saapকালীঘাটের পটুয়ারা ছিলেন স্বাধীন, তাঁদের বৃত্তি ছিল বংশপরম্পরায়। বেশকিছু শিল্পী জীবদ্দশাতেই খ্যাতিমান হয়েছিলেন, তা সত্ত্বেও এই ঘরানাকে বেশিদিন বাঁচিয়ে রাখা যায়নি। ১৯৩০ সালের মধ্যেই কালীঘাটের পটশিল্প বিলুপ্ত হয়ে যায়।

কালীঘাটের পট আরেক ধরণের হয়, সেগুলো মাপে খুব বড়ো। ম্যাঞ্চেষ্টার থেকে আসা সুতির কাপড়ের ওপর আঁকা হতো। এই ধরণের কিছু পট সংগ্রাহক পরিমল রায়ের কাছে আছে।

Advertisements
This entry was posted in Cultural journey and tagged , . Bookmark the permalink.

1 Response to হোয়াট্সঅ্যাপের আড্ডা — ১ : কালীঘাটের পট

  1. অমলেন্দু শী বলেছেন:

    অসাধারণ তথ্যসমৃদ্ধ লেখা। ধন্যবাদ। আমি অমলেন্দু। আমার নম্বর 7003143978 আমি উৎভাস গ্রুপে জয়েন করতে চাই। উপায় বলে দেবেন প্লিজ।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s